শিল্পমন্ত্রণালয় জমির বদলে পাচ্ছে ২১৩ কোটি টাকা

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জস্থ্য রংপুর চিনিকলের (রচিক) বিরোধপূর্ণ এক হাজার ৮০০ একর জমিতে ইপিজেড স্থাপনে সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্ত রয়েছে।সূত্রমতে, এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ইতিমধ্যে জমির বদলে শিল্পমন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ‘বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়া করণ এলাকা’ (বেপজা) কর্তৃপক্ষের দুইশ ১৩ কোটি ৩৮ লাখ ৬৫ হাজার টাকা চুক্তি হয়েছে।

গত মঙ্গলবার বিকাল ৩ টায় বেপজার নির্বাহী চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম রচিকের এ বিরোধপূর্ণ জমি পরিদর্শন করেন।এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন, রংপুর ইপিজেডের প্রকল্প পরিচালক আশরাফুল ইসলাম,জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) তৌহিদুল ইসলাম,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রধান, ইউএনও আবু সাঈদ, সহকারি কমিশনার (ভূমি) তরিকুল ইসলাম,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান সরকার, গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি মেহেদী হাসান প্রমুখ।

এর আগে, গাইবান্ধা জেলা প্রশাসকের সস্মেলন কক্ষে এক সভায় মিলিত হন বেপজার নির্বাহী চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম।এ সময় তিনি বলেন,‘সাঁওতালদের সঙ্গে ইপিজেড নিয়ে আলোচনা করা হবে।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সাঈদ জানান,‘আরইপিজেড বাস্তবায়নের আগে সাঁওতালদের সঙ্গে আলোচনা হবে।এটি বাস্তবায়ন হলে দুই লক্ষাধিক মানুষ কর্মস্থানের সুযোগ পাবেন।’

প্রসঙ্গত, গত ২০১৪ সালে উপজেলার সাহেবগঞ্জস্থ্য রচিকের এক হাজার ৮০০ একর জমি পৈত্রিব হিসেবে দাবি করে আন্দোলনে নামেন স্থানীয় সাঁওতালরা। তারা উক্ত জমি ফিরে পেতে সেই থেকেই আন্দোলন করে আসছেন।এরই ধারাবাহিবতায় ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর এক ত্রিমুখী সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারান তিন সাঁওতাল।

শর্টলিংকঃ