রাজশাহী মেডিকেল থেকে ১৮ দালাল আটক

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (রামেক) বহিবিভাগ ও জরুরি বিভাগের সামনে থেকে ১৮ দালালকে গ্রেপ্তার করেছে  মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এরা দীর্ঘ দিন ধরেই মিথ্য প্রলোভন দেখিয়ে হাসপাতাল থেকে রোগী ভাগিয়ে নগরীর বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিকে নিয়ে যেতো।

বুধবার সকালে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি দল অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। পরে তাদের নগরীর রাজপাড়া থানায় হস্তান্তর করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- আরিফ শেখ (৫০), প্রসাদ কুমার দাস (২৫), শামসুজ্জোহা ভুট্টু(৪০), নাইম হোসেন (৩২), শফিউল ইসলাম ওরফে শুভ (২৫), রফিকুল ইসলাম বাবু (৩৭), মোটাস-সিম ইসলাম ওরফে রুপক (২৬), মো তুহিন (৫০), সেলিম রেজা জনি (৩০), দেলোয়ার হোসেন টনি (২৮), রুবেল রানা (৩৫), মুকুল হোসেন (৩৮), মুসলিমা বেগম (৩৬), পেয়ারা বেগম (৩০), পলি বেগম (৩৫), এনামুল হোসেন (৩০), রবিউল আওয়াল (২৮) এবং সুমন কুমার তলাপাত্র (৩২)।

রাজশাহীর মহানগর ডিবির সিনিয়র সহকারী কমিশনার রাকিবুল ইসলাম জানান, সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে রামেক হাসপাতাল এবং লক্ষীপুর এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় রোগীদের জিম্মি করে এ্যাম্বুলেন্সে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় চক্রের সদস্য ও রোগী ধরার দালালসহ ১৮ জনকে আটক করা হয়।

তিনি বলেন, আটককৃতরা রাজশাহী মহানগর এবং জেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা। আটককৃতদের প্রাথমিক জিঙ্গাসাবাদে রোগী ধরার দালাল চক্রের মূলহোতার সন্ধান পাওয়া গেছে। তাকেও আটকের চেষ্টা চলছে। এছাড়া আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এরপর বুধবার দুপুরেই তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

শর্টলিংকঃ