যে কারণে যুবলীগের পদ হারালেন ব্যারিস্টার সুমন

যুবলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমনকে দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দিয়েছে যুবলীগ। শনিবার রাতে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিখিল বলেন, সংগঠনের গঠনতন্ত্র বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকার অভিযোগে তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়াা হয়েছে। ইতিপূর্বেও তাকে বিভিন্ন কারণে দুই দফা কারণ দর্শানো নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়াও তিনি সাংগঠনিক কার্যক্রমেও অনুপস্থিত থাকেন।

জানা গেছে, গত ৪ আগস্ট রাত ১২টা ১ মিনিটে বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র শেখ কামালের জন্মদিনে আওয়ামী লীগের দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নেন রীয়তপুরের পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তার হোসেন। এ সময় তিনি শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্ততক অর্পণ করে চিৎকার করে স্লোগান দেন। ওই স্লোগানের ২৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

এ ঘটনার সমালোচনা করে ফেসবুকে লাইভে আসেন সুমন। সেখানে ওসি আক্তার হোসেনের তীব্র সমালোচনা করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। একই সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান।

সুমন বলেন, আমার কথা হচ্ছে, আপনি যখন সরকারি দায়িত্বে থাকবেন কিংবা রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে থাকবেন, তখন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে আবেগ দেখানোর সঙ্গে সঙ্গে কিন্তু আপনার বিরুদ্ধে পানিশমেন্ট নিয়ে আসা উচিত। কিন্তু তিনি এখনো ওই জায়গাতে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত আছেন।

শর্টলিংকঃ