যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করলেন প্রেসিডেন্ট এরদোগান

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগানের। জো বাইডেন ক্ষমতায় এলে মার্কিন তুরস্কে সম্পর্কে ভাটা পড়ে।

বাইডেন ক্ষমতায় এসে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় অটোম্যান সাম্রাজ্যের চালানো আর্মেনিয়া গণহত্যাকে স্বীকৃতি দেয়ার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেন। তার এমন সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ তুরস্ক।

এবার দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করলেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগান।

তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি তুরস্ককে একপেশে করে ফেলে তাহলে তারা এক মূল্যবান বন্ধুকে হারাবে।

এদিকে, আগামী ১৪ই জুন ব্রাসেলসে ন্যাটো সামিটের এক ফাঁকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে এরদোগানের সাক্ষাৎ হওয়ার কথা রয়েছে। তার আগেই বাইডেনকে তিনি এমন হুঁশিয়ারি দিলেন এরদোগান।

একই সঙ্গে আর্মেনিয়ায় গণহত্যাকে স্বীকৃতি দেয়ায় বাইডেনের সমালোচনাও করেছেন এরদোগান।

তুরস্ক, সৌদি আরবের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে কথা বলে আসছিলেন। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তুরস্কের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এর প্রেক্ষিতে আঙ্কারা-ওয়াশিংটনের মধ্যে সম্পর্কের বিষয়ে প্রশ্ন করলে এরদোগান বলেন, যে তুরস্ককে একপেশে করে দেবে, সে মূল্যবান একটা বন্ধু হারাবে।

শর্টলিংকঃ