করোনাভাইরাস

ভারতে দৈনিক মৃত্যু ৫ হাজার ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা

ভারতে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বিধ্বংসী রূপ ধারণ করেছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে গত সপ্তাহে ২৬ লাখের বেশি মানুষ সংক্রমিত হন। একই সময়ে মৃত্যু বেড়ে দাড়িয়েছে ২৩ হাজার ৮০০ জনের।

গত ২৪ ঘন্টায় করোনা প্রাণ কেড়ে নিয়েছে আরও সাড়ে ৩ হাজার মানুষের। একই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭০ হাজারের বেশি মানুষ।

ওয়ার্ল্ডোমিটার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানায় গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৪২২ জনের। এ পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ১৮ হাজার ৯৪৫ জন। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হন ৩ লাখ ৭০ হাজার ৫৯ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছেন এক কোটি ৯৯ লাখ ১৯ হাজার ৭১৫ জন।

এই আন্তর্জাতিক জরিপকারী সংস্থার তথ্য মতে, সোমবার সকাল পর্যন্ত ভারতে ১ কোটি ৯৯ লাখ ১৯ হাজার ৭১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মারণ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে প্রাণ হারিয়েছে ২ লাখ ১৮ হাজার ৯৪৫ জন।

এখন দেশটিতে প্রতিদিন করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। সাত দিনের হিসেবে গত ২৬ এপ্রিল থেকে ২ মে পর্যন্ত সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর আগের সাত দিনে ২২ লাখ ৫ হাজার মানুষ মহামারী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন। করোনা শনাক্তের পর প্রথম ৪ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারি সাত দিনে করোনা শনাক্ত বেশি ছিল। তবে সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে গত সাত দিনে।

এখন প্রতিদিনই সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা আগের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে। প্রচণ্ড অক্সিজেন সংকটে মৃত্যু হয়েছে বহু মানুষের। মর্গ ও শ্মশানে ভিড় জমেছে। শ্মশানে জায়গার সংকুলান না হওয়ায় দিল্লিসহ কয়েক রাজ্যে গণচিতা তৈরি করা হয়েছে। খোঁড়া হচ্ছে গণকবর এবং মরদেহ পোড়াতে বানানো হয়েছে অস্থায়ী শ্মশান। জাত-ধর্ম ভুলে মৃতদেহ সৎকারে সহযোগিতা করছে মুসলিমরাও।

এমন অবস্থাতেও বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন, চলতি মাসে ভারতে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি আরও ভয়ংকর রূপ নেবে। এসময়ে একদিনে মৃত্যুর সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে। সংক্রমণও হবে রেকর্ড পরিমাণ।

শর্টলিংকঃ