বগুড়ায় আ.লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

বগুড়ায় মমিনুল ইসলাম রকি নামে আওয়ামী লীগের এক নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) রাত পৌনে ১০টার দিকে শহরতলীর ফাঁপোড় ইউনিয়নের ফাঁপোড় হাটখোলায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত মমিনুল ইসলাম রকি ফাঁপোড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন। তিনি ফাঁপোড় মন্ডলপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের ছেলে। বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বগুড়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাফুজুল ইসলাম তার রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্বচিত করে বলেন, “হত্যাকাণ্ডের শিকার মমিনুর ফাঁপোড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমান কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন।”

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাতে রকি ফাঁপোড় খেলার মাঠ সংলগ্ন মসজিদে এশার নামাজ পড়তে আসেন। তিনি নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হয়ে পাশের একটি দোকানে গল্প করছিলেন । এ সময় একদল দুর্বৃত্ত তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে পায়ে ও মাথায় কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্রাথায় ত ১০টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মমিনুল ইসলাম রকিকে মৃত ঘোষণা দেন।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, “একদল দুর্বৃত্ত মমিনুল ইসলাম রকিকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।”

কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, অন্যের দেনা, পাওনা নিয়ে এলাকার অন্য একটি পক্ষের সঙ্গে বিরোধ ছিল রকির। এ ছাড়া আগামী ইউপি নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীদের সঙ্গে তার বিরোধ ছিল। এ ছাড়া ফাঁপোড় উচ্চবিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি নিয়ে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গেও বিরোধ ছিল তার।

শর্টলিংকঃ