নায়িকা মাহির বিচ্ছেদের ঘোষণায় যা বললেন অপু

দীর্ঘদিন ধরেই গুঞ্জন ছিল, রোববার দিবাগত রাত ১২টা ৪৯ মিনিটে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে সেই গুঞ্জন সত্যি হওয়ার ইঙ্গিত ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির। মধ্যরাতে বিবাহবিচ্ছেদের ইঙ্গিতপূর্ণ স্ট্যাটাস দেওয়ার পর মাহি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে পাঁচ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানছেন তিনি।

এক খুদে বার্তায় বিবাহ বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে মাহির বক্তব্য, ‘পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার থেকে আমি আলাদা হয়ে গেছি। এর বেশি কিছু বলার নেই।’ এরপর মাহি অনুরোধ করেছেন, ‘বিষয়টি যতটুকু সম্মান দিয়ে উপস্থাপন করা যায়। প্লিজ নেগেটিভ কিছু লিখবেন না।’

যদিও মাহির বিচ্ছেদের ঘোষণা প্রসঙ্গে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় পারভেজ মাহমুদ অপু বলেছেন, ‘আমি ফেসবুকে দেখলাম ও আপনাদের কাছ থেকে শুনলাম। এ বিষয়ে মাহির সঙ্গে কথা হয়েছে মাত্র, বিস্তারিত কথা বলে আপনাদের সঙ্গে কথা বলব।’

গতকাল শনিবার  দিবাগত রাত দেড়টার দিকে মাহি তার ফেসবুকে লেখেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শ্বশুর বাড়ির মানুষগুলোকে আর কাছ থেকে না দেখতে পাওয়াটা, বাবার মুখ থেকে মা জননী, বড় বাবার মুখ থেকে সুনামাই শোনার অধিকার হারিয়ে ফেলাটা সবচেয়ে বড় অপারগতা। আমাকে মাফ করে দিও। তোমরা ভালো থেক। আমি তোমাদের আজীবন মিস করব।’

তবে শনিবার রাতে গণমাধ্যমকে মাহি বলেন, ‘বিষয়টি সত্যি। তবে অনুরোধ করব নেতিবাচক কিছু না লেখার। আমি চাই পরস্পরের সম্মানবোধটা বাঁচুক।’ ২০১৬ সালে জমকালো আয়োজনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরেছিলেন মাহি। সিলেটের ব্যবসায়ী মাহমুদ পারভেজ অপুকে বিয়ে করেছিলেন তিনি। গেল কয়েক বছরে একাধিকবার বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল তার।

অপুর সাথে ফেসবুকে ছবি-স্ট্যাটাস, শ্বশুর বাড়ি ঘুরতে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন নিজের ফেসবুকে। তা দেখে বোঝাই যাচ্ছিল মাহির সংসার ভালো চলছে। কিন্তু হঠাৎ সেখানে বিচ্ছেদের সুর বেজে উঠল। মাহিও কিছুদিন ধরে ফেসবুক স্ট্যাটাসে তা বোঝানোর চেষ্টা করেছেন।

শর্টলিংকঃ