নদী ভাঙ্গনরোধে এলাকাবাসীর আবেদন

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে গত ২ দিনের ভারি বর্ষন ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে করতোয়া নদীর পানি আবারও বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই সাথে নদী ভাঙ্গন তীব্র আকার ধারন করেছে। ভাঙ্গনরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গাইবান্ধা পাউবোর নিকট আবেদন জানিয়েছে এলাকাবাসী।

জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত করতোয়া নদীর পানি গত কয়েকদিনে আবারও বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে নদী তীরবর্তী এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। প্রতি বছর করতোয়া নদীর পানি বৃদ্ধিতে নদী তীরবর্তী এলাকায় তীব্র ভাঙ্গন দেখো দিলেও ভাঙ্গনরোধে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কার্যকর কোন উদ্যোগ নেই। উপজেলার ফুলবাড়ি ইউনিয়ন ও তালুককানুপুর ইউনিয়নের বড় রঘুনাথপুর, শ্যামপুর পার্বতীপুর ও সুন্দইল মৌজার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত করতোয়া নদীর তীব্র ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

বড় রঘুনাথপুর গ্রামের বড় রঘুনাথপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, আল কোরআন হাফেজিয়া মাদ্রাসা, কমিউনিটি ক্লিনিক ও স্কুল কাম ফ্লাড সেন্টার, জামে মসজিদ এবং সুন্দইল গ্রামের একটি কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ, ২টি জামে মসজিদসহ কয়েকটি বসতবাড়ি নদী ভাঙ্গনের কবলে পড়েছে।

জরুরী ভিত্তিতে উল্লেখিত এলাকায় নদী ভাঙ্গনরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে আগামীতে বন্যা হলেই বসতবাড়ী, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদসহ জনসাধারণের চলাচলের একটি গুরত্বপূর্ন সড়ক নদীগর্ভে বিলিনের আশংকা রয়েছে।  তাই সরেজমিনে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানিয়ে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিকট একটি আবেদন জানিয়েছে এলাকাবাসী।

শর্টলিংকঃ