ঝিনাইদহে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

ঝিনাইদহে কিশোর গ্যাংয়ের ছুরিকাঘাতে হুসাইন (২০) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হন- জুলফিককার ও ফিরোজ নামে দুই সহোদর। তাদের শরীরের বিভন্ন স্থানে ছুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বুধবার রাতে সদর উপজেলার মান্দারবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত হুসাইন ঝিনাইদহ পৌর এলাকার ইসলামপাড়ার এলাকার মনিরুল ইসলামের ছেলে হুসাইন। আহতরা হলেন- একই এলাকার নজরুলের ছেলে ফিরোজ (২০) ও জুলফিককার (১৮)।

জানা যায়, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মান্দারবাড়িয়া গ্রামের ওয়াজ মাহফিলের উপলক্ষে গ্রাম্য মেলা বসে। বুধবার রাতে ওয়াজ শুনতে ও মাঠে ঘুরতে আসে ঝিনাইদহ শহরের পৌর এলাকার হুসাইন, জুলফিককার ও ফিরোজ হোসেন। তারা তিনজন বন্ধু। ওই সময় ফল বিক্রেতা জিহাদী এক কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যের সাথে তাদের ধাক্কা লেগে যায়।

ঘটনাটি নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে জিহাদীর কাছে থাকা সেভেন গিয়ার বের করে তাদের বেপরোয়া ছুরিকাঘাত করে। এতে ৩ জন আহত হয়। তাদেরকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে হুসাইন ও জুলফিককার অবস্থার অবনতি হওয়ার রাতে ঝিনাইদহের কর্তব্যরত ডাক্তার ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে ভর্তির কিছুক্ষণ পরে হুসাইন যায়। নিহতও আহত তিনজন ঝিনাইদহ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এ বছর এসএসসি পাস করেছে।

ঝিনাইদহ সদর থানার এস আই এমদাদ বলেন, ছুরিকাঘাতের ঘটনায় হুসাইন নামে এক যুবক মারা গেছেন। জুলফিককার ও ফিরোজ আপন দুই ভাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে কি কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শর্টলিংকঃ