গাইবান্ধায় বাসে প্রেট্রাল বোমায় নিহত ৮, মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহণ মঙ্গলবার

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোল বোমা হামলায় এক শিশু ও নারীসহ আটজন নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার মঙ্গলবার প্রথম স্বাক্ষ্য গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রাশেদা সুলতানা এ স্বাক্ষ্য গ্রহণ করবেন।

আদালত সুত্র জানায়, ২০১৫ সালের ৬ ফেব্রুয়ারী রাতে পুলিশ প্রহরায় সুন্দরগঞ্জ থেকে নাপু এন্টার প্রাইজের একটি বাস ৫০/৬০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছিল। বাসটি রাত পৌনে ১১ টায় জেলা সদরের বুড়িরঘর নামক স্থানে পৌঁছালে ওই বাসে পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারা হয়। এতে দগ্ধ ৩৮ জনের মধ্যে সুমন (১২), শিল্পি দাম (৮), হামিদা বেগম (৪৫), আবুল কালাম আজাদ (৪০), সাজু মিয়া (২৫), সোনা ভান বেগম (৩০), সুজন মিয়া (১৩) ও সৈয়দ আলী (৪২)সহ ৮জন বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

গাইবান্ধা সদর থানার তৎকালিন এসআই মাহাবুব বাদি হয়ে পরের দিন বুধবার থানায় একটি মামলা করেন। মামলায় বিএনপি-জামায়াতের ৬০ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে আসামি করা হয়। এাড়াও অজ্ঞাত পরিচয়ে আরো ২৮/৩০ জনকে আসামি করা হয়েছে। তৎকালিন সদর থানার এসআই হাবিবুর রহমান তদন্তকালে একশ একজনকে স্বাক্ষী করে ২০১৬ সালের ২৫ মার্চ সংশ্লিষ্ট আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি (পিপি) শফিকুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, অভিযুক্ত বিএনপি জামায়াতের ৭৭ জনের মধ্যে ৬৬ জন জামিনে আছেন। একজনের মৃত হয়েছে, বাকী ১০ জন পলাতক রয়েছেন। ২০১৭ সালের ২৩ নভেম্বর আদালত সংশ্লিষ্ট আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে ৬ ফেব্রুয়ারী স্বাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য্য করেন। সেই আনুয়ায়ী স্বাক্ষ্য গ্রহণ প্রথম দিন মঙ্গলবার মামলার বাদি এসআই মাহাবুবের স্বাক্ষ্য গ্রহণ করা হবে।

শর্টলিংকঃ