করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ( কোভিপ-১৯) হামলায় বিশ্বে যেমন মৃত্যুর প্রাচীর দীর্ঘ হচ্ছে, তেমনই সেটা টপকে চলছে করোনা মুক্ত জীবনের সন্ধান। আন্তর্জাতিক  জরিপকারি সংস্থা ‘ওয়ার্ল্ডোমিটার’ এর তথ্য অনুযায়ী বিশ্বজুড়ে এ ভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ৪লক্ষ ৮০ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৯৩ লাখ ৬৯ হাজার ২২৭ জন। এই মহামারীর মাঝে নিরলস প্রচেষ্টায় গবেষকরা দিন রাত এক করে ফেলছেন।

এই পরিস্থিতির মাঝে কখনও আসছে রুশ ওষুধ অ্যাভিফ্যাভির তো মার্কিন প্রতিষেধক রেমডিসিভির। আবার কখনও ইংল্যান্ডের ডেক্সামেথাসোন-কে নিয়ে আলোড়ন। এরই মধ্যে শুরু হলো- অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই বহু প্রতিক্ষীত টিকা নিয়ে শোরগোল। বিবিসির খবরে বলা হয়, ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে মানব দেহে অক্সফোর্ড টিকার প্রয়োগ। প্রথমে এই টিকার প্রয়োগ হবে দক্ষিণ আফ্রিকায়। জোহানেসবার্গ শহরে দ্রুত ছড়াচ্ছে করোনা। তাই এখানকার রোগীদের বেছে নিয়েছেন গবেষকরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার পাশাপাশি ব্রাজিলেও ২০০০ করোনা আক্রান্ত কে অক্সফোর্ডের টিকা দেওয়া হচ্ছে। গবেষকদের দাবি, অক্সফোর্ডে তৈরি এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল করোনা মহামারি সামলাতে এটাই প্রথম ও সবচেয়ে উন্নত ভ্যাকসিন। এই টিকার পরীক্ষা ইংল্যান্ডেও হয়েছে বলে দাবি করে গবেষকরা বলেন সেখানে সংক্রমণ কমতির দিকে। এবার দক্ষিণ আফ্রিকায় জোহানেসবার্গে প্রথম ডোজ এই সপ্তাহে প্রয়োগ হবে। তথ্যসূত্র : বিবিসি

শর্টলিংকঃ