ঈদে করোনা হামলার ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে এবার ঈদের ছুটিতে কেউ ঘরে ফিরবেন না।কিন্তু কে শোনে কার কথা। আসন্ন ঈদে ঘরমুখী মানুষের ভিড় দেখে আতঙ্কিত সবাই। এই কারণে আশঙ্কা হচ্ছে করোনা হামলার ভয়ঙ্কর বিপদের মুখে বাংলাদেশ। ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে রাজধানী ঢাকা ছাড়ছেন বহু মানুষ। বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা ভাইরাসের হটস্পট ঢাকা শহর। সেখান থেকে সারাদেশে করোনা রোগী ছড়িয়ে পড়বে। আর রোধ করার  কোন উপায় নেই। এমনইটাই মনে করছেন তাঁরা।

সরকারের পক্ষ থেকে ঘরে থাকার জন্য বাববার তাগিদ দেওয়া হচ্ছে।কেউ যেন ঢাকা ছাড়তে না পারে সেজন্য মহাসড়কে বসানো হয়েছে অসংখ্য পুলিশ চেকপোষ্ট। তবে চেকপোষ্টের দ্বায়িত্বে থাকা কিছু সংখ্যক পুলিশ সদস্য যথাযথ দ্বায়িত্ব-কর্তব্য পালন করছেনা। ফলে তাদের সামন দিয়েই গণপরিবহন এমনকি রড় ভতি ট্রাকের উপর যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে আসছে উত্তরাঞ্চলে। বিশেষ করে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার সামনে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের চেকপোষ্টে যথাযথ দ্বায়িত্ব পালন হচ্ছেনা । সম্প্রতি ওই চেকপোষ্ট হয়ে ঢাকা ছেড়ে আসা একটি রড় বোঝাই ট্রাক ২০-২৫ জন যাত্রী নিয়ে ওই মহাসড়কের পলাশবাড়ী উপজেলার দুবলাগাড়ী এলাকায় উল্টে গিয়ে ৩ শিশুসহ ১৩ যাত্রী প্রাণ হারান।

এদিকে, করোনার সংক্রমণ পর্যায়ক্রমে বেড়েছে। বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। ওয়ার্ল্ডোমিটার এবং বাংলাদেশ স্বাস্থ্য অধিদফতরের হিসেব এ পর্যন্ত ৩২ হাজার ৭৮ জন মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর মৃত হয়েছে ৪৫২ জনের। এই অস্থায় ঈদ উপলক্ষে বাড়ি ফেরার টান আরও বেশি মৃত্যু ডেকে আনবে।ইতিমধ্যে ঢাকা থেকে মানুষ গ্রামে যাওয়ার ভিড়ে সেই সম্ভাবনা তৈরির পথে।  বিশেষজ্ঞরা মনে করেন ঢাকা ও ঢাকার আশেপাশের জেলা ছাড়া বিভিন্ন জেলায় করোনা সংক্রমণের হার কম ছিল। এখন ভিড়ের কারণে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকতে গ্রামাঞ্চলের মানুষ। এটা বোঝা যাবে এখন থেকে আরও ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে । স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা ঈদের ছুটিতে শহর ছেড়ে কাউকে গ্রামে না যাওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।

আমরাও মনে করি‘গ্রামে যাওয়ার কারণে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।তাই গ্রামে না যাওয়াই সবচেয়ে ভাল। দয়া করে যাই যে যেখানে আছেন সেখানেই থাকুন। শহর থেকে গ্রামের দিকে যাবেন না। আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য শহর থেকে গ্রামে যেতে চাচ্ছেন, ভাল কথা। কিন্তু আপনার কারণে সেই প্রিয়জন যেন ঝুঁকিতে না পড়েন।

শর্টলিংকঃ