ইউরোপ থেকে দেশে এলেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ১৮ দফা সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে সরকার। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। সিদ্ধান্তসমুহ অবিলম্বে সারাদেশে কার্যকর হবে এবং পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত আপাততঃ দুই সপ্তাহ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

এদিকে বাংলাদেশে সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ইউরোপ থেকে বাংলাদেশে এলেও নিজ খরচে ১৪ দিনের হোটেল কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। অন্য দেশ থেকে এলেও ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূক করা হয়েছে।

ইউরোপ থেকে আগত সকল যাত্রীকে বাংলাদেশ সরকার নির্ধারিত প্রতিষ্ঠানে বা নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিন বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। ইউরোপ ছাড়া অন্যান্য দেশ থেকে যারা আসবেন তাদেরকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। আগামীকাল ৩১ মার্চ থেকে নতুন এই নিয়ম কার্যকর হবে। যাত্রীর ভ্যাক্সিন দেয়া থাকলেও এই নিয়ম বহাল থাকবে।

সরকারের জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা মোকাবিলায় সরকারের নেয়া সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। বিদেশ ফেরতদের যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছে সরকার। এতে বলা হয়, বিদেশ থেকে আগত যাত্রীদের ১৪ দিন পর্যন্ত নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে করতে হবে।

এর আগে শুধু যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের ক্ষেত্রে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক ছিল। বর্তমান প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী যেকোনো দেশ থেকে এলেই কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক। বিদেশ হতে আগত যাত্রীদের ১৪ দিন পর্যন্ত প্রাতিষ্ঠানিক (হোটেলে নিজ খরচে) কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে হবে।

শর্টলিংকঃ